Home / খেলাধুলা / এক মুখে দুই কথা বিসিবি সভাপতির

এক মুখে দুই কথা বিসিবি সভাপতির

টি-টোয়েন্টি থেকে মাশরাফি বিন মর্তজার অবসর নিয়ে বিভ্রান্তির শুরুটা তাঁকে দিয়েই। কারণ বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান নিজেই রোববার দুপুরে একটি বেসরকারী টেলিভিশন চ্যানেলকে বলে দেন মাশরাফি নিউজিল্যান্ডে শেষ টি-টোয়েন্টি খেলেই এই ফরম্যাটকে বিদায় জানাতে চেয়েছিলেন। কিন্তু বিসিবির প্রধান নির্বাহীর কাছ থেকে খবর পেয়েই তিনি সঙ্গে সঙ্গে নির্দেশনা পাঠান ঘোষণা দেশে এসে দেওয়ার জন্য। ওই দিন রাতেই অবশ্য আরেক চ্যানেলে নিজের দেওয়া খবরকেই গুজব বলে উঁড়িয়ে দেন তিনি। এতেই ছড়ায় বিভ্রান্তি। বিভ্রান্তি ছড়ানোর জন্য ব্যাপক সমালোচনার মুখেও পড়েন তিনি। তা থেকে পরিত্রাণ পেতে সোমবার ধানমণ্ডিতে নিজের কর্মস্থল বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালসের অফিসে ডাকা সংবাদ সম্মেলনে তিনি ‌‌’গুজবে’ই স্থির থেকেছেন অবশ্য!

এবার তিনি বলেছেন, ”আমাকে একটি চ্যানেল থেকে জিজ্ঞেস করা হয়েছিল মাশরাফির টি-টোয়েন্টি থেকে অবসর নেওয়ার বিষয়ে আপনি কিছু জানেন কিনা। আমি বলেছি মাশরাফির সঙ্গে আমার রোজ কথা হয়। আর যে কোনো ম্যাচ শুরুর আগে মাশরাফি, সাকিব, তামিম, মুশফিক ও রিয়াদ- এই পাঁচজনের সঙ্গে আমি কথা বলে নেই। মাশরাফির সঙ্গে আমার কালও (রোববার) কথা হয়েছে। এ বিষয়ে ও আমাকে কিছুই বলেনি। আমি মনে-প্রাণে বিশ্বাস করি ওর সঙ্গে আমার যে সম্পর্ক, এ ধরনের কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে সে আমার সঙ্গে অন্তত আলাপ করবে। ওর যদি অবসর নিতেও হয়, ও বাংলাদেশে এসে আমার সঙ্গে আগে আলাপ করবে। তারপরই সিদ্ধান্ত নেবে।

এটাই ছিল আমার টিভির সঙ্গে বক্তব্য। আজ সকালেও মাশরাফির সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। ও আমাকে ঠিক এ কথাই বলেছে। ‘আমি এরকম কিছু যদি করিই, আপনার সঙ্গে আলাপ না করে কি করব?’ সুতরাং বাস্তবতা হল, যে কথাটি এসেছে তা সঠিক নয়।” কিন্তু আগেরদিনই বলেছিলেন বিসিবির প্রধান নির্বাহীর কাছ থেকে খবরটি পেয়েছিলেন তিনি। সে প্রসঙ্গ তোলা হলে নাজমুল বললেন, ”সিইও সুজন আমাকে বলল, ‘আপনাকে কি মাশরাফি কিছু বলেছে?’ আমি বললাম, ‘না তো। কী বলবে?’ তখন সুজন জানাল, সবাই নাকি কানাঘুষা করছে যে মাশরাফি টি-টোয়েন্টি থেকে অবসর নেবে।’ আমি তখন ওকে জিজ্ঞেস করলাম, ‘তোমাকে কিছু বলেছে?’ তখন সে বলল, ‘না, আমি তো কাল রাতেও ওর সঙ্গে কথা বললাম। কিছু বলেনি।’ তখন আমি বললাম যে এটা তাহলে হতেই পারে না। এভাবেই আসলে কথাটা এসেছে।” কথা ঘুরিয়ে ফেললেও বিসিবি সভাপতি কিন্তু আগেরদিন বলেছিলেন এরকম, ‘‘মাশরাফির সঙ্গে আমার প্রতিদিনই কথা হয়। কিন্তু বিষয়টি ও আমাকে বলেইনি। আমাকে গতকাল (শনিবার) সিইও সুজন (বিসিবির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নিজামউদ্দিন চৌধুরী) ফোন করে জিজ্ঞেস করল, ‘আপনি কিছু শুনেছেন? মাশরাফি আপনাকে কিছু বলেছে?’ আমি বললাম, ‘না তো।’ সুজনের কাছ থেকেই শুনলাম, মাশরাফি নাকি ঘোষণা দেবে যে এটাই (সিরিজের শেষ টি-টোয়েন্টি ম্যাচটি) ওর শেষ আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি। শুনে আমি বললাম, ‘ওকে বলে দাও ঘোষণা দিলে সেটা বাংলাদেশে এসে আনুষ্ঠানিকভাবেই দেবে। ওখানে কেন?’ ব্যস, আমি এটাই বলেছি। এরপর দেখলাম, আজ (গতকাল) ঘোষণাটা ও দেয়নি। আপাতত এটুকুই আমি জানি। দেশে ফিরলে তো কথা হবেই।’

Check Also

আজ পারবে কী বাংলাদেশ!

প্রত্যাশার কমতি ছিল না ওয়ানডে সিরিজ নিয়ে। টেস্ট সিরিজে বাজেভাবে হারের পরও সীমিত ওভারে গত …

Leave a Reply

Your email address will not be published.