Home / আন্তর্জাতিক / ক্ষমতা গ্রহণের আগেই মার্কিন নীতি লঙ্ঘন করলেন ট্রাম্প

ক্ষমতা গ্রহণের আগেই মার্কিন নীতি লঙ্ঘন করলেন ট্রাম্প

a639১৯৭৯ সাল থেকে চলে আসা মার্কিন নীতি লঙ্ঘন করে তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট সাই ইং-ওয়েনের সঙ্গে সরাসরি কথা বলেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত ডোনাল্ড ট্রাম্প। ৩৭ বছর আগে তাইওয়ানের সঙ্গে আনুষ্ঠানিক সম্পর্ক ছিন্ন করে যুক্তরাষ্ট্র, আর তখন থেকেই দু’দেশের শীর্ষ নেতাদের মধ্যে সরাসরি যোগাযোগ বন্ধ ছিল।

ট্রাম্পের অন্তর্বর্তীকালীন উপদেষ্টা কমিটির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, শুক্রবার এক টেলিফোন সংলাপে যুক্তরাষ্ট্র ও তাইওয়ানের মধ্যে অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক ও নিরাপত্তা সম্পর্ক শক্তিশালী করার ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন ট্রাম্প ও ইং-ওয়েন।

এক টুইটার বার্তায় ট্রাম্প জানিয়েছেন, নির্বাচনে জয়ী হওয়ায় তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট সাই তাকে অভিনন্দন জানাতে ফোন করেছিলেন। কোনও মার্কিন প্রেসিডেন্ট বা প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত ব্যক্তির জন্য তাইওয়ানের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে সরাসরি কথা বলাটা খুবই বিরল।

ট্রাম্প শিবির আরও জানিয়েছে, গত জানুয়ারির নির্বাচনে জয়ী হয়ে তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট হওয়া সাইকেও অভিনন্দন জানিয়েছেন ট্রাম্প। ওই নির্বাচনে ডেমোক্র্যাটিভ প্রগ্রেসিভ পার্টি (ডিপিপি) থেকে ৫৯ বছর বয়সী সাই তাইওয়ানের প্রথম নারী প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন। তার দল চীন থেকে তাইওয়ানকে পুরোপুরি স্বাধীন করার পক্ষে আন্দোলন করছে।

এই ঘটনায় ক্ষুব্ধ হতে পারে চীন। এর ফলে ‘এক চীন নীতি’-র বিরুদ্ধে পরবর্তী মার্কিন প্রশাসনের অবস্থানও স্পষ্ট হয়েছে বলে বিশ্লেষকরা মনে করছেন। বেইজিং তাইওয়ানকে নিজের অবিচ্ছেদ্য অংশ বলে মনে করে। চীনের শত শত ক্ষেপণাস্ত্র তাক করা আছে তাইওয়ানের দিকে। প্রয়োজনে বলপ্রয়োগের মাধ্যমে তাইওয়ানকে মূল ভূখণ্ডের অন্তর্ভুক্ত করারও হুমকি দিয়ে রেখেছে চীন।

তবে তাইওয়ানের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে ট্রাম্পের টেলিফোনালাপের ব্যাপারে এখনও চীনের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিক কোনও প্রতিক্রিয়া জানানো হয়নি।

উল্লেখ্য, ‘এক চীন নীতি’-র প্রতি সমর্থন জানিয়ে যুক্তরাষ্ট্র ১৯৭৯ সালে তাইওয়ানের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করে। তবে মার্কিন প্রশাসন তাইওয়ানের সঙ্গে অনানুষ্ঠানিকভাবে সম্পর্ক বজায় রাখে।

Check Also

রাখাইন সমুদ্রবন্দরের ৭০ শতাংশ দখলে নিচ্ছে চীন

মিয়ানমারের রাখাইনে গভীর সমুদ্রবন্দরের ৭০ শতাংশ অংশীদারিত্ব নিচ্ছে চীন। কৌশলগতভাবে গুরুত্বপূর্ণ এই বন্দর বিষয়ে ইতোমধ্যে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.