Home / রাজনিতি / প্রধানমন্ত্রীকে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিলেন রিজভী

প্রধানমন্ত্রীকে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিলেন রিজভী

a431প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে সর্তক থাকার পরামর্শ দিয়েছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। তিনি বলেন, আমি প্রধানমন্ত্রীকে বলবো আপনি সাবধান থাকুন, আপনার আশেপাশে যে লোকগুলো রয়েছে তাদের ব্যাপারে আপনি সর্তক থাকুন। কারণ আপনার পিতার লাশ ডিঙ্গিয়ে আপনার দলের লোকেরাই সেদিন শপথ গ্রহণ করেছিল। আপনি বিএনপি বা অন্য কোনো বিরোধীদলের দিকে তাকিয়ে সময়ক্ষেপন করবেন না, আতঙ্কিত হবেন না।

বুধবার (৯ নভেম্বর) দুপুরে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি মিলনায়তনে শিক্ষক কর্মচারী ঐক্য জোটের উদ্যোগে জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

রিজভী বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আপনার দলের লোকজনকে নিয়ে আপনি সব সময় ভয় ও আতঙ্কে থাকেন। আপনি নিজেই বেশ কিছুদনি আগে বলেছেন, শুধু আপনাকে বাদ দিয়ে আওয়ামী লীগের সবাব নেতাকেই কেনা যায়। আপনিও ভয় পান তাদেরকে কিন্তু বলেন না। মাঝে মাঝে বলেন।’’

রিজভী বলেন, যেহেতু আওয়ামী লীগের সবাব নেতাকেই কেনা যায় তাই যেকোনো সময়ে তারা বিরোধীতা করতে পারে যেমন বিশ্বাসঘাতকতা করেছে আপনার দলের লোক আপনার বাবার সাথে। তাই বিএনপির দিকে তাকিয়ে আর ৭ নভেম্বর নিয়ে কুৎসা রটনা করলে কিছু লাভ হবে না।

তিনি বলেন, ৭ নভেম্বর আপনি (প্রধানমন্ত্রী) এ জন্যই বিএনপিকে জনসভা করতে দেন না। কারণ ৭ নভেম্বর যদি ভালো করে উৎযাপন হয় তাহলে আপনাদের পাপ ও ব্যর্থতা উন্মোচিত হয়ে উঠে আসবে।

বিএনপি এই নেতা বলেন, আওয়ামী লীগের ব্যর্থতা বাকশাল আর গণতন্ত্রের কবর দেয়া। কবর খুঁড়ে সেই গণতন্ত্রকে মুক্ত করেছে ৭ নভেম্বর। এর জন্যই শেখ হাসিনার এতো ভয়, তাঁর পুলিশ বাহিনী বিএনপিকে জনসভা করতে অনুমতি দিতে চায় না। কারণ জনসভা করার অনুমতি দিলে আওয়ামী লীগের ব্যর্থতা, অপকর্ম, গণতন্ত্র হত্যা, সংবাদপত্রের স্বাধীনতার হত্যা রহস্য বেরিয়ে আসবে।

আইনশঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর উদ্দেশ্য রিজভী বলেন, আমরা আগেও বলেছি এখনো বলছি, যদি রাষ্ট্রের বাহিনী হিসাবে আপনারা কাজ করেন, আপনাদের কাজের মধ্যে যদি নিরপেক্ষতা থাকে তাহলে এই দেশ টিকবে, এগিয়ে যাবে। আর আপনারা যদি একটি দল যারা জোর করে ক্ষমতায় টিকে আছে তাদের অনুগত হয়ে কাজ করেন তাহলে এদেশে কখনোই শান্তি আসবে না। আপনারা যদি ভাড়াটিয়া বাহিনী হন, তাতে মানুষ প্রতিদিন ক্ষুব্ধ হবে। যে অজুহাতে আপনারা জনসভা করতে দেননি আমরা সব খোঁজখবর নিয়ে আবারো জনসভা করতে আবেদন করেছি। বিএনপি ৭ নভেম্বর জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবস উপলক্ষে আগামী ১৩ নভেম্বর রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জনসভা করবে। প্রত্যাশা করি জনসভার অনুমতি দেবেন ।

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি অধ্যক্ষ সেলিম ভুইয়ার সভাপতিত্বে অন্যান্যদের মধ্যে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্ঠা আব্দুস সালাম, বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা অধ্যাপক ওবায়দুল ইসলাম, ইঞ্জিনিয়ার রিয়াজুল ইসলাম রিজু, আব্দুস সালাম আজাদ, শহীদুল ইসলাম বাবুল, আব্দুল আউয়ান খান, কাদের গনি চৌধুরী প্রমুখ বক্তব্যে রাখেন।

Check Also

কাদের চাপে ইসলামি ব্যাংকে পরিবর্তন, জানতে চায় বিএনপি

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, অর্থমন্ত্রী বলেছেন বিদেশি ও দেশের চাপে তারা ইসলামী …

Leave a Reply

Your email address will not be published.