Home / on-scroll / বিমানের ত্রুটি সারিয়ে হাঙ্গেরির পথে প্রধানমন্ত্রী

বিমানের ত্রুটি সারিয়ে হাঙ্গেরির পথে প্রধানমন্ত্রী

n04ত্রুটি মেরামতের পর ওই উড়োজাহাজেই প্রধানমন্ত্রী ও তার সফরসঙ্গীরা বুদাপেস্টের উদ্দেশ্যে  রওনা হয়েছেন বলে জানিয়েছেন বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের মহা ব্যবস্থাপক (জনসংযোগ) শাকিল মেরাজ  জানিয়েছেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী, স্থানীয় সরকারমন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন, পানিসম্পদমন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এবং ব্যবসায়ীদের একটি প্রতিনিধি দল এই সফরে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে রয়েছেন। বাংলাদেশ সময় রাত ১০টা ৫৭ মিনিটে তারা বুদাপেস্টে পৌঁছাবেন বলে শাকিল মেরাজ জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, “যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে বাংলাদেশ সময় বেলা আড়াইটায় বিমানটি তুর্কমেনিস্তানের রাজধানীতে জরুরি অবতরণ করে। ত্রুটি সারিয়ে টেস্ট রান দেখে বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা  ৬টা ৩৭ মিনিটে বিমানটি সবাইকে নিয়ে হাঙ্গেরির উদ্দেশ্যে রওনা হয়।”

বেসামরিক বিমান পরিবহন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন বলেন, “দুই ইঞ্জিনের মধ্যে একটিতে ফুয়েল প্রেশার কমে যাচ্ছিল। এ কারণে তাৎক্ষণিকভাবে সবচেয়ে কাছের বিমানবন্দর হিসেবে আশখাবাতে অবতরণ করেছে।”

পানি সম্মেলনে যোগ দিতে তিন দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে রোববার সকাল ৯টা ১৪ মিনিটে বাংলাদেশ বিমানের বিবিসি ১০১১ (বিজি১০১১) ফ্লাইটে বুদাপেষ্টের উদ্দেশ্যে৪ ঢাকা ত্যাগ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শাকিল মেরাজ জানান, বিমান বহরে ‘রাঙা প্রভাত’ নাম পাওয়া বোয়িং ৭৭৭-৩০০ ইআর উড়োজাহাজটিতে প্রধানমন্ত্রী ও তার সফরসঙ্গীসহ ৯৯ জন যাত্রী এবং ২৯ জন ক্রু রয়েছেন।

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম জানান, বিমান জরুরি অবতরণের পর প্রধানমন্ত্রী চার ঘণ্টা আশখাবাত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ভিভিআইপি লাউঞ্জে অবস্থান করেন।

“খবর পেয়ে তুর্কমেনিস্তানের উপ প্রধানমন্ত্রী বাইমিরাত হোজামুহাম্মেদভ বিমানবন্দরে এসে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন।”

এদিকে প্রধানমন্ত্রীকে হাঙ্গেরি পৌঁছে দিতে বিকল্প ব্যবস্থা হিসেবে ঢাকা থেকে লন্ডনমুখী বিমানের বিজি০০১ ফ্লাইটকে ঘুরিয়ে তুর্কমেনিস্থানে নিয়ে যাওয়া হয়।

শেখ হাসিনা আগের বিমানেই বুদাপেস্টের দিকে রওনা হওয়ায় হিথ্রোগামী আকাশপ্রদীপ আবার নির্ধারিত গন্তব্যে  উড়াল দেয়।

হাঙ্গেরিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এটাই প্রথম সফর। তার এই সফরে হাঙ্গেরির প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে দুই দেশের সরকারি-বেসরকারি পর্যায়ে চারটি সমঝোতা স্মারকে সই হওয়ার কথা রয়েছে।

তিন দিনের এই সফর শেষে বুধবার সকালে দেশের উদ্দেশ্যে রওনা হওয়ার কথা রয়েছে প্রধানমন্ত্রীর।

Check Also

হাসপাতালে টাকা দিতে না পারায় খোলা স্থানে সন্তান প্রসব

হাসপাতাল চত্বরে প্রসব বেদনায় চিৎকার করছেন এই নারী। অনেকেই দেখছেন, কিন্তু কেউ এগিয়ে আসছেন না। …

Leave a Reply

Your email address will not be published.