Home / খেলাধুলা / ১২৪ রানেই অল আউট চিটাগং

১২৪ রানেই অল আউট চিটাগং

a468রথম ম্যাচে ১৬১। চ্যাম্পিয়ন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সকে ২৯ রানে হারানো। কিন্তু দ্বিতীয় ম্যাচে ১৯.৪ ওভারে মাত্র ১২৪ রানে অল আউট হলো তামিম ইকবালেরন চিটাগং। রংপুর রাইডার্সের বোলারদের দাপটে এই সংগ্রহটা তারা করেছে বড় কষ্টে। মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে বুধবার বিপিএলের দ্বিতীয় ম্যাচে রংপুর উড়ন্ত সূচনা আশা করতেই পারে। চিটাগংয়ের বোলারদের সামনে কঠিন পরীক্ষা।

তামিম ইকবাল টস হেরে বলেছিলেন ১৬০-১৭০ রান তাদের লক্ষ্য। কিন্তু তাদের ওপেনিং জুটির দুই ব্যাটসম্যানই ফিরলেন ২১ রানের সময়। স্পিনার সোহাগ গাজী ৩ বলের মধ্যে ফিরিয়ে দিয়েছেন ডোয়াইন স্মিথ (১০) ও তামিমকে (১১)। প্রথম ম্যাচে ফিফটি করেছিলেন তামিম।

এরপর শোয়েব মালিক এক প্রান্ত ধরলেন। আগের ম্যাচেও জ্বলেছে এই পাকিস্তানির ব্যাট। ৪৮ রানের জুট হলো এনামুল ও শোয়েবের মধ্যে। কিন্তু ব্যাটসম্যানের ব্যাট হয়ে বোলারের হাতে লেগে স্টাম্প ভাঙলো। বেরিয়ে পড়া এনামুল রান আউট। টানা দ্বিতীয় ম্যাচে রান আউট তিনি। ১৬ বলে ২৫ রান তার।

এরপর ৯ রানের মধ্যে আরো ২ উইকেট হারায় চিটাগং। আরাফাত সানি তুলে নেন জহুরুল ইসলামকে (৩)। রুবেল হোসেনের প্রথম শিকার মোহাম্মদ নবি (৫)। এক রানকে ২ করতে গিয়ে সৌম্য সরকারের সরাসরি থ্রোতে রান আউট হয়েছেন শোয়েব (৩০)।

৯৩ রানে ৬ উইকেট নেই। তবে চিটাগংয়ের ব্যাটিং লাইন আপ লম্বা। জাকির হাসান, নাজমুল হোসেন মিলন ছিলেন। আব্দুর রাজ্জাকও ভালো ব্যাট করেন। লোয়ার অর্ডারের জন্য ছিল ৫.২ ওভার। কিন্তু ২ বল বাকি থাকতে অল আউট চিটাগং। তবে মূল্যবান ৩১ রান এল। সোহাগ গাজী ও রিচার্ড গ্লেসন ২টি করে উইকেট নিলেন। রুবেল, শহীদ আফ্রিদি ও আরাফাত সানির শিকার ১টি করে। বাকি ৩টি রান আউট।

Check Also

আজ পারবে কী বাংলাদেশ!

প্রত্যাশার কমতি ছিল না ওয়ানডে সিরিজ নিয়ে। টেস্ট সিরিজে বাজেভাবে হারের পরও সীমিত ওভারে গত …

Leave a Reply

Your email address will not be published.